জিনসেং এর উপকারিতা কি ? জিনসেং এর গুণাগুণ কি ?

By | September 17, 2018

জিনসেং এর বৈজ্ঞানিক নাম Panax ginseng . উদ্ভিদ বিজ্ঞানিদের গবেষনায়, জিনসেং উদ্ভিদ মরন ছাড়া সর্ব রোগের অব্যর্থ মহা ওষধ এবং আজীবন যৌবন ও তারণ্য ধরে রাখার বাজীকরন ভেষজ।

জিনসেং উদ্ভিদের পরিচিতি-
বন্য জিনসেং ১০ থেকে ১১ বছর বয়সে প্রথম বারের মত ফুল দেয়। জিনসেং এর শিকর ও মূল ব্যবহার করা হয়। মূলের ওজন ১০ থেকে ৫০ গ্রাম পর্যন্ত হয়। তবে গাছের বয়স ৫০ থেকে ১০০ বছর হলে ৪০০ গ্রাম এমনকি ৬০০ গ্রাম ওজন হয়। ছোট ছোট রক্তবিন্দু সমন্বিত ছোট ছেলের আকৃতি বিশিষ্ট মূলই হচ্ছে জিনসেং।

প্রাপ্তিস্হান-
চীন,আমেরিকা,কোরিয়া,রাশিয়া,সিঙ্গাপুর ও তিব্বত জিনসেং এর জন্মস্হান বলে বিবেচিত।

জিনসেং এর কার্যকারিতা-
০১। জিনসেং উচ্চ রোগ প্রতিরোধক হিসেবে বিশেষ ভূমিকা রাখে।
০২। জিনসেং যৌবন পুনরুদ্ধারের জন্য বিশেষ কার্যকর।
০৩। জিনসেং উচ্চ যৌনশক্তি বর্দ্ধক হিসেবে কাজ করে।
০৪। জিনসেং দেহের বলকারক,আনন্দদায়ক ও আয়ুবর্দ্ধক।
০৫। জিনসেং হজমকারক,বমননাশক,কফ ও কাশ দূর করে।
০৬। জিনসেং নিন্ম রক্তচাপে বিশেষ উপকার হয়।
০৭। জিনসেং মহিলাদের সন্তান উৎপাদন ক্ষমতা বৃদ্ধি করে।
০৮। জিনসেং স্বাস্হ্যবান লোকের বার্ধক্য রোধ করে।
০৯। জিনসেং কামোদ্দীপনা বৃদ্ধি করে।
১০। জিনসেং মানসিক চাপ কমিয়ে মনকে উদ্দীপ করে।
১১। জিনসেং মাথা ব্যথা দূর করে।
১২। জিনসেং গলার কন্ঠস্বর পরিষ্কার করে।
১৩। জিনসেং রক্তের কলেষ্টেরল কমাতে সাহায্য করে।
১৪। জিনসেং ত্বক সুন্দর করে।
১৫। জিনসেং স্মৃতিশক্তি বৃদ্ধি করে।
কথিত আছে জিনসেং প্রচন্ড কামোদ্দীপক গুণ আছে যা হরিনের শিং এর মজ্জা প্যানক্রিয়াটিন এর চেয়েও নাকি বেশি।

 

630 total views, 4 views today

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *